সম্মতিতে যৌন সম্পর্কও বিয়ে !

উপযুক্ত বয়সে কোনো নারী ও পুরুষের যৌথ সম্মতিতে গড়ে ওঠা যৌন সম্পর্ক হলে ভারতে তা বিয়ে হিসেবে গণ্য হবে। মঙ্গলবার ভারতের মাদ্রাজ হাইকোর্ট বিয়ের সংজ্ঞার পরিসর বাড়িয়ে এ ধরনের রায় দেয়- এবিপি ইয়াহু ইন্ডিয়া’র এক প্রতিবেদনে এ খবর প্রকাশ করা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এক মুসলিম নারী স্বামীর কাছ থেকে ভরণপোষণের আর্জির শুনানি করেন বিচারপতি কে সি কারনান।  বিচারপতি কে সি কারনান বলেন, “বিয়ের পূর্বে ২১ বছর বা তার বেশি বয়সের একজন পুরুষের সাথে আঠারো বছর বা তার বেশি বয়সের একজন নারীর যৌন সম্পর্ক তৈরি হলেই আইনত তারা স্বামী-স্ত্রী গণ্য হবেন।”

বিচারক বলেন, “কোনো নারী-পুরুষ আইনসম্মত বয়সে যৌন সম্পর্ক করে এবং এর ফলে এ নারী যদি গর্ভবতী হয় এবং সে নারী যদি ঐ পুরুষের স্ত্রী হিসেবে স্বীকৃতি দাবি করে তবে তা দাবি করার পূর্ণ অধিকার রয়েছে।”

গর্ভবতী না হলেও এ ধরনের সম্পর্কের যথাযথ প্রমাণ পেশ করলেই দুজনকে দম্পতি হিসেবে গণ্য করা হবে। এক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট মহিলার সাথে আইনসঙ্গতভাবে বিবাহ বিচ্ছেদ না করে ওই পুরুষ পুনরায় বিয়ে করতে পারবেন না।

এক্ষেত্রে সমাজকে সন্তুষ্ট করতে কিছু ধর্মীয় রীতি মানাতে হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, “মালাবদল, আগুনকে সাক্ষী রেখে সাত পাক ঘোরা, অথবা রেজিস্ট্রেশন অফিসে রেজিস্টার করা উচিত। তবে না করলেও সমস্যা হবে না।”

এই নির্দেশের সপক্ষে যুক্তি দিয়ে তিনি বলেন, “যৌন সম্পর্কই বিয়ের মূলভিত্তি। যৌন সম্পর্ক থাকলে সেই নারী ও পুরুষ বিবাহিত দম্পত্তির মতো আইনি অধিকার পাবেন।”

সুত্রঃ  পরিবর্তন অনলাইন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।