টুইটারে বিয়ে!

বন এখন প্রযুক্তি নির্ভর। তাহলে বিয়েটাই বা কেন আটকে থাকবে সেকেলে পদ্ধতিতে। তাই প্রযুক্তিকে ব্যবহার করেই আইপ্যাডে টুইটের মাধ্যমে বিয়ে করেছেন তুরস্কের ইস্তাম্বুল নগরীর এক যুগল।   দুজনের হাতে দুই আইপ্যাড। বিয়ের সাজে পাশাপাশি বসে আছে বর আর কনে। এরপর আইপ্যাডে বিয়ের প্রতিশ্র“তি বাক্যে টুইট করে বিয়ের কাজটি সেরে নিয়েছেন তারা। এটিই বিশ্বে টুইটারে প্রথম বিয়ে বলে ধারণা করা হচ্ছে।   আধুনিক প্রযুক্তিনির্ভর এ বিয়ের বর হচ্ছেন ইস্তাম্বুলের উসকুদার এলাকার জেনগিজান জেনিক ও কনে জানদাল চেলিক। বর জেলিক একটি সংবাদভিত্তিক ওয়েবসাইটের স্যোসাল মিডিয়া এডিটর বলে জানিয়েছে তুরস্কের দৈনিক ‘মিল্লিয়েত ’।

আর সাধারণত স্থানীয় ধর্ম গুরুরাই বিয়ে পরিচালনা করে থাকেন। কিন্তু এ বিয়েতে এক্ষেত্রেও ছিল ব্যতিক্রমী উদ্যোগ। তাদের বিয়ে পরিচালনা করেছেন উসকুদারের মেয়র মুস্তফা কারা। কারা তাদের টুইট করে জিজ্ঞাসা করেন তারা কি নিজেদের আইনগতভাবে স্বামী ও স্ত্রী হিসেবে গ্রহণ করতে চায়? তারপর ‘আমি রাজি’ এই বলে পাল্টা টুইট করে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা পালন করেন জেনিক ও চেলিক। এরপর চেলিকের হাতে বিয়ের সনদ তুলে দিয়ে নবদম্পতিকে আশীর্বাদ করেন মেয়র।  ইস্তাম্বুলের একটি হোটেলে সোমবার অনুষ্ঠিত এ বিয়েতে হাজার হাজার অতিথি উপস্থিত ছিলেন। উপস্থিত সবাই এলসিডি মনিটরে বিয়ের আনুষ্ঠানিতা উপভোগ করেন। সুত্রঃ বিডি নিউজ ২৪

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।