ছেলেরা জীবনসঙ্গীর যে গুন গুলো রূপ থেকে বেশি প্রাধান্য দেয়।

প্রতিটা মেয়ে তার সঙ্গীর মনের রানী হয়ে থাকতে চায়, অনেকের ধারনা ছেলেরা সুন্দর চেহারার মায়েদেরকে বেশি পছন্দ করে, ধারনাটি সম্পূর্ণ ঠিক না। বেশির ভাগ ছেলেরা মেয়েদের রূপে নয় গুণে মুগ্ধ হয়। সকল মেয়েদের উদ্দেশ্যে বলছি, আপনি কোন শো-পিস না, আচারনগত গুন আপনার আসল সৌন্দর্য। মেয়েদের যে আচরণ গুলো তার সঙ্গীর মনে দৃঢ় অবস্থান সৃষ্টি করে, সে চমৎকার বিষয় গুলো তুলে ধরা হলোঃ

জীবনের কঠিন সময়ে পাশে থাকা: আমাদের জীবনে ভালো সময় যেমন আসে, খারাপ সময় তেমনি আসে। ভালো সময়ে সবাই পাশে থাকে, কিন্তু খারাপ সময় কেউ থাকেনা। আপনি যদি আপনার সঙ্গীর কঠিন সময়টাতে তার পাশে থাকেন তবে কঠিন সময়টা কিছুটা হলেও সহজ মনে হবে।

বিশ্বাসের মর্যাদা: পরস্পরের প্রতি বিশ্বাস ছাড়া কোন সম্পর্ক সম্পূর্ণ হয়না। আপনার সঙ্গী আপনার প্রতি তখনি বেশী আশ্বস্থ হবে যখন আপনি তার বিশ্বাস ভাঙতে দেবেন না। কখনো এমন কোন ভুল কাজ করবেন না যেটার প্রভাব আপনাদের সম্পর্কের উপর পড়ে। আপনার প্রতি আপনার সঙ্গীর যে বিশ্বাস আছে তার মর্যাদা অক্ষুন্য রাখুন।

ভাষার মিষ্টতা: মানুষ তার মুখের ভালো ভাষা দিয়ে যে কারো মন জয় করতে পারে। আপনি যদি আপনার সঙ্গীর সাথে কথা বলার সময় মিষ্টি করে কথা বলেন তাহলে আপনার জন্য তার মনে গভীর স্থান তৈরি হবে। ছেলেরা তার সঙ্গীর মধ্যে এধরনের গুণ আশা করে।

সঙ্গীর জীবনের লক্ষ্যকে নিজের মনে করা: কথায় আছে প্রত্যেক সফল পুরুষের পেছনে একজন নারী থাকে।আপনি যদি আপনার সঙ্গীর সাথে তার সাফল্য অর্জনের পথে থাকেন তবে মনে রাখবেন আপনি হবেন তার সবচেয়ে পছন্দের মানুষ।

আর্থিক স্বাবলম্বী হওয়ার সময় মনোবলের যোগান: আমাদের দেশের প্রেক্ষাপটে, প্রতিটি ছেলে শিক্ষাজীবন পার করে আর্থিক ভাবে স্বাবলম্বী হতে চাকরি বা ব্যবসা শুরু করে, তবে পথটা এত সহজ না। আপনি যদি এই কঠিন সময়টাতে তার পাশে থেকে উৎসাহিত করেন তবে আপনি সঙ্গী হিসাবে আদর্শ।

মানুষ তার আচারনকে পরিবর্তন করতে পারে, কিন্তু চেহারা পরিবর্তন করতে পারেনা। আমাদের উচিৎ সঙ্গীর সাথে সব সময় সৎ আচারন করা।